হোয়াটসঅ্যাপে কিভাবে এইচডি কোয়ালিটি ছবি পাঠাবো?

আমাদের নিত্যদিনের জরুরি কোনো কাজে কিংবা বন্ধুদের সাথে মজার সময় কাটাতে বার্তা বা তথ্য আদান প্রদানের ক্ষেত্রে সোশ্যাল মাধ্যমসহ স্মার্টফোনে নানা ধরণের অ্যাপ ব্যবহার করে থাকি। এর মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোন ইউজারদের কাছে হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) অন্যতম।

কিন্তু এই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে শখের বসে তোলা ছবি কিংবা কোথাও বেড়াতে যাবার ভিডিও কাউকে পাঠাতে কিংবা যে কোনো দরকারি কাজে তথ্যাদি পাঠাতে গেলে অনেকক্ষেত্রে ছবি অথবা ভিডিও সংযুক্ত করে দিতে হয়। সেক্ষেত্রে দেখা যায় অন্যকে সেই ছবি অথবা ভিডিও পাঠালে তার গুণমান পূর্বের তুলনায় অনেকটা কমে যায়। তাই অনেকে উচ্চ রেজল্যুশনের বা এইচডি কোয়ালিটি ছবি অথবা ভিডিও পাঠানোর উপায় নিয়ে চিন্তায় পড়ে যান। অনেক সময় দেখা যায় সেই পাঠানো ছবি ছবি ফেটে গিয়েছে আবার ভিডিও ঝাপসা ও ঘোলাটে হয়ে গিয়েছে।

আর এই  প্ল্যাটফর্মে কিছু টিক্স বা উপায় না জানার কারণে অনেকে হয়তো সেই সুবিধা ভোগ করতে পারেন না। হোয়াটসঅ্যাপের কিভাবে হাই কোয়ালিটির ছবি পাঠাবেন, তার সহজ দুইটি টিপস নিয়ে আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি। যারা জানেন না তাদের জন্য এই টিপস দুটি দারুণ কাজে দিবে। আপনি যদি আমাদের এই দুটি টিক্স মেনে কাজ করেন তাহলে আপনিও পারবেন হোয়াটসঅ্যাপে যে কোনো ধরণের ছবি অথবা ভিডিও সরাসরি এইচডি (হাই-ডেফিনেশন) মান বা ফরম্যাটে অন্যের কাছে পাঠাতে।

হোয়াটসঅ্যাপে হাই কোয়ালিটির ছবি পাঠানোর উপায়

হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ভালো কোয়ালিটি বজায় রেখে ছবি ও ভিডিও শেয়ার করা যায়। এতে ছবি অথবা ভিডিওর গুণমান ঠিক রেখে তা পাঠানো সম্ভব। আর তাই আমরা সেন্টিংস এ গিয়ে ঠিক করতে পারি আবার ডকুমেন্ট হিসাবে ছবি ও ভিডিও পাঠাতে পারি যাতে এর কোয়ালিটি নিম্ন মানের না থাকে।

তবে ডকুমেন্ট হিসাবে ছবি অথবা ভিডিও পাঠালে চ্যাটে কোনো ধরণের প্রিভিউ দেখা যায় না। কেবল ফাইলের নাম দেখা যায়। আর হোয়াটসঅ্যাপে সাম্প্রতিক ফিচারে এই সমস্যার কাজটি সমাধান হতে চলেছে।

হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে হাই-কোয়ালিটি বা ভালো মানের ছবি পাঠাতে সাধারণভাবে ছবি অথবা ভিডিও সেন্ড না করে একে ডকুমেন্ট হিসেবে পাঠানোই ভালো। আবার এ কাজটি ঝামেলার মনে হলে আপনি তা সেটিংসে ঠিক করে স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারেন। তাহলে আর পাঠানো ছবি অথবা ভিডিওর কোয়ালিটি বাজে হবে না। আর হ্যাঁ, সেটিংস ঠিক করতে কাজের শুরুতে আপনার স্মার্ট ফোনের হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট ভার্সনটি ইনস্টল করে না থাকলে ইনস্টল করে নিন।

এবার তাহলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ভালো গুণমানের ছবি অথবা ভিডিও পাঠাবেন কিভাবে তা দেখে নেওয়া যাক।

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো

  • পদ্ধতিঃ ০১

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো

১. এজন্য প্রথমে আপনার স্মার্টফোনে হোয়াটসঅ্যাপটি অপেন করে সেখানকার ডান পাশের ত্রি ডট আইকনে ক্লিক সেটিংস অপশনে যেতে হবে।

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো 2

২. এরপর একটু নিচে স্ক্রল করে ‘স্টোরেজ এবং ডেটা’ লেখা এই অপশনে গিয়ে সেখানের ‘মিডিয়া আপলোড কোয়ালিটি’ অপশনটিতে চলে যান।

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো 3

৩. সেখানে থাকা তিন অপশনের মধ্যে আপনার সেটিংসটি অটো দেওয়া থাকলে তার বদলে ‘বেস্ট কোয়ালিটি’ অপশনটি বাছাই করে ওকে-তে ক্লিক করে দিন।

এছাড়া আরও একটি উপায়ে হোয়াটসঅ্যাপে ছবি অথবা ভিডিওর কোয়ালিটি ভালো রেখে তা সেন্ড করা সম্ভব। সেক্ষেত্রে ছবিগুলো সাধারণ ভাবে না সেন্ড করে এক্ষেত্রে ডকুমেন্ট আকারে সেন্ড করতে হবে। তাহলে আপনার কাঙ্খিত ব্যক্তিকে পাঠানো ছবি অথবা ভিডিও কোয়ালিটির মান ভালো থাকবে, নষ্ট হয়ে যাব না। এভাবে আপনি চাইলে যে কোনো জিনিস ডকুমেন্ট আকারে  হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে সেন্ড করে পাঠাতে পারবেন।

হোয়াটসঅ্যাপে এইচডি কোয়ালিটির ফটো পাঠানোর সেটিংস

  • পদ্ধতিঃ ০২

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো 4

১. ভালো কোয়ালিটি বজায় রাখতে ছবি অথবা ভিডিও পাঠানোর জন্য আপনাকে তা পাঠাতে হবে ডকুমেন্ট হিসেবে। এজন্য প্রথমে আপনার স্মার্টফোনে হোয়াটসঅ্যাপটি অপেন করে কাঙ্খিন ব্যক্তির চ্যাট বক্সে গিয়ে সেখানে ক্লিপ অপশনটিতে ক্লিক করুন।

WhatsApp-এ কিভাবে বেস্ট কোয়ালিটির ফটো সেন্ড করবো 5

২. এরপর ডকুমেন্ট অপশনটি বাছাই করুন।

৩. তারপর আপনার ছবি অথবা ভিডিও স্মার্টফোনের কোথায় ও কোন ফাইলে সংরক্ষিত রয়েছে সেখানের ফোল্ডারে গিয়ে সিলেক্ট করুন।

৪. সিলেক্ট হয়ে গেলে নিচের ক্যাপশন বক্সে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি লিখে সেন্ড করে দিতে পারেন। ব্যস হয়ে গেলো।

শেষ কথা

ফটো ও ভিডিও আপলোড কোয়ালিটি বেস্ট করতে উপরিউক্ত দুটি নিয়মের যে কোনো একটি উপায় ফলো করলেই চলবে। আপনি আপনার সুবিধা এর যে কোনো একটি পদ্ধতি বাছাই করে কোয়ালিটি ভালো রেখে সহজেই হোয়াটসঅ্যাপে ছবি অথবা ভিডিও পাঠাতে পারবেন। এতে মান নষ্ট হবার চান্স থাকে কম যার কারণে আপনি যাকে ছবি অথবা ভিডিও পাঠাবেন তার কাছ থেকে আর শুনতে হবে না যে ছবির বা ভিডিওর মান নাকি নষ্ট হয়ে গিয়েছে। প্রয়োজনভেদে বড় সাইজের ছবি ও ভিডিও পাঠাতে গেলে মোবাইল ইন্টানেট কানেকশনের মেগাবাইটে সেন্ড হতেও না পারে তাই তখন wifi কানেকশন ব্যবহার করুন।

Leave a Comment