একই উচ্চতার ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের দেখতে লম্বাটে দেখায় কেনো?

সাধারণত ১০ বছর বয়সে ৫০ শতাংশ মেয়েরা ছেলেদের তুলনায় দ্রুত লম্বা হতে শুরু করে। মেয়েদের বৃদ্ধির হার ১০ থেকে ১৩ বছর বয়সের মধ্যে ছেলেদের তুলনায় বেশি। ১৩ বছর বয়সের পরে সাধারণত মেয়েদের উচ্চতা বৃদ্ধি সম্পন্ন হয় এবং ছেলেদের উচ্চতা বৃদ্ধি তখন প্রাথমিক পর্যায়ে থাকে। সারা বিশ্বে পুরুষ-মহিলার গড় উচ্চতার অনুপাত হলো ১.০৭। যার মানে গড়ে পুরুষরা মহিলাদের তুলনায় প্রায় ৭% লম্বা হয়ে থাকেন। তবে সমগ্র বিশ্বে এই আপেক্ষিক পার্থক্য মাত্র ২.৩% থেকে ১২% পর্যন্ত পরিবর্তিত হতে পারে। তবে যাই হোক ছেলে ও মেয়েদের উচ্চতার জন্য এই পার্থক্য তেমন লক্ষ্যণীয় না হলেও আমাদের চোখের ধাঁধার কাছে তা ভুল প্রামাণিত হয়ে উঠে। আর এটাই সত্য। এর কারণ জানাতে আজকের এই লেখনিতে আপনারা জানবেন কেনো সমান উচ্চতার ছেলেদের তুলনায় মেয়েদেরকে বেশি লম্বা দেখায়? আসুন জেনে নেওয়া যাক-

একই উচ্চতার মেয়েদেরকে তুলনামূলকভাবে ছেলেদের চেয়ে লম্বা কেনো দেখায় এটি কেবল চোখের দৃষ্টির ভ্রান্তি নয় রয়েছে কিছু সম্ভাব্য কারণ, যা নিচে উল্লেখ করা হলো :

০১: প্রথমত যদি একই উচ্চতার ছেলে ও মেয়ে একে অপরের পাশে দাঁড়ায় তবে মেয়েকে লম্বা দেখাবে। কারণ ছেলেরা কেবল লম্বা নয়, হাড় মোটা হওয়ার কারণে দেহের দিক থেকেও চওড়া। আবার মেয়েরা লম্বা দেখতে ঝোঁক কারণ তাদের দেহ পাতলা ও হালকা গড়নের যার জন্য তারা প্রায়শই ছেলেদের থেকে উচ্চতার লম্বা না হলেও চোখের ভুল উপলব্ধির ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষই ভ্রান্ত ধারণা পেয়ে থাকেন।

০২: আবার একই উচ্চতার মানুষদের মধ্যে যাদের উপরের দেহাংশ বা ধড়ের অনুপাতের তুলনায় ছোট পা তাদের থেকে আকারে বড় পায়ের অধিকারী ব্যক্তিকে দেখতে বেশি লম্বা মনে হয়। যেমন- সাদারণত মেয়েরা তুলনামূলক লম্বা পায়ের অধিকারী হয়। এজন্য ৫ ফুট ৪ ইঞ্চির কোনো মেয়েকে আপাত দৃষ্টিতে যতটা লম্বা মনে হবে ঠিক তেমনি একই উচ্চতার কোনো ছেলেকে ততটা লম্বা মনে হবে না। তার তাই মেয়েরা অ্যাভারেজ উচ্চতার একটু বেশি হলেই তাদের অনেকটা লম্বা বলে মনে হয়। কিন্তু কোনো খর্বাকৃতি পায়ের ব্যক্তি স্ট্যান্ডার্ড উচ্চতার থেকে লম্বা হলেও তাকে খাটো বলে মনে হয়।

০৩: ছেলেরদের দেহের মাসল, কাঁধ দেখতে মেয়েদের তুলনায় বেশি চওড়া লাগে। তাই উভয়ই একই উচ্চতার হলেও মেয়েদেরকে ছেলেদের তুলনায় বেশি লম্বা মনে হয়।

০৪: আবার স্থূলতা (মোটা গড়নের) হওয়ার কারণে অনেকের উচ্চতা ঢাকা পড়ে যায়। আবার চিকন গড়নের কাউকে আপাত দৃষ্টিতে দেখলে স্বাভাবিক উচ্চতায় তাদের খানিকটা লম্বা বলে মনে হয়।

০৫: পোশাকের কারনেও দেহের উচ্চতার তারতম্য ঘটতে দেখা যায়। কেউ যদি দেহের তুলনায় ঢিলেঢালা ও বড় পোশাক পড়েন তাহলে তিনি লম্বা গড়নের হলে খাটো দেখাবে আবার কেউ যদি দেহের সাথে আটসাটো করে  টাইট ফিটিং পোশাক পড়েন তাহলে ক্ষেত্রবিশেষে উচ্চতা বেশি বলে দৃষ্টিগোচর হতে পারে। যেমন- কেউ যদি ফিটিং প্যান্ট পড়েন আর সেই টাইট ফিটিং প্যান্ট পড়নের কারণে আগের চেয়ে বেশি লম্বা মনে হবে। আবার কেউ লুজ বা ঢিলে পোশাক পরিধান করেন তাহলে তার উল্টোটি ঘটবে।

Leave a Comment